কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে - কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না

ডায়াবেটিস হলে কোন কোন সবজি খাবেন না

প্রিয় পাঠক বন্ধু আপনি কি ডায়াবেটিস সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য যেমন কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে অথবা কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না এই সকল বিষয় নিয়ে জানতে চাচ্ছেন। আপনি যদি কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে এবং ডায়াবেটিস সংক্রান্ত সকল তথ্য জানতে চান তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার অনেক উপকারে আসবে।

কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে - কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না

আজকের আর্টিকেলটির আলোচনার মূল বিষয় হলো কোন কোন খাবার খেলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে এবং কি কি খাবার খেলে ডায়াবেটিস হবে না, কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে যাবে ইত্যাদি বিষয়ে তাই আর্টিকেলটি স্কিপ না করে মনোযোগ সহকারে পড়তে থাকুন।

পোস্ট সূচিপত্রঃ কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে - কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না

.

কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে ?

যখনই আমাদের আশেপাশের কোন মানুষের বা নিজের ডাইবেটিস হয় তখনই মাথার মধ্যে একটাই চিন্তা সে যে কি খেলে দ্রুত ডায়াবেটিস কমে? কিন্তু আমরা সকলেই ভুলে যাই যে যেকোনো রোগ থেকে পরিত্রাণ পেতে সবার প্রথমে সতর্কতা প্রয়োজন। যদি খাবার এবং সতর্কতা অবলম্বন করা যায় তাহলে অবশ্যই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রাখা যাবে।

আরও পড়ুনঃ ডায়াবেটিস হলে কি কি সমস্যা হয় জানুন 

আমরা আমাদের নিত্যদিনের তালিকায় যে সকল খাবার খেয়ে থাকে সেগুলোর মধ্যে কিছু কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত নিয়ন্ত্রণে থাকে। তাহলে চলুন জেনে নেই কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে,

  • শসাঃ শসাতে  অধিক পরিমান পানি, ফাইবার এবং ভিটামিন সি রয়েছে যা ডায়াবেটিস কে নিয়ন্ত্রণে রাখতে খুব কার্যকর।
  • আখের গুড়ঃ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে আখের গুড় খাওয়ার কোন বিকল্প নেই।আখের গুড় খেলে ডায়াবেটিসের পয়েন্ট নিয়ন্ত্রণে থাকে।
  • আখঃ ডাইবেটিস দ্রুত কমিয়ে আনার জন্য যদি কোন কিছু সব থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ সেটি হলো আখ। আপনি চাইলে আখের শরবত খেতে পারেন।
  • শাকসবজিঃ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য সবুজ শাকসবজি খাওয়ার কোন বিকল্প নেই। আপনি যদি দ্রুত ডায়াবেটিস কমাতে চান তাহলে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় শাকসবজি রাখবেন।
  • নিমের পাতাঃ নিমের পাতা ওষুধে গুণসম্পন্ন একটি গাছ। আপনি যদি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান তাহলে প্রতিদিন খালি পেটে এক গ্লাস নিম পাতার রস খাবেন।
  • নিম ফলঃ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য নিমের ফল খুব গুরুত্বপূরন। নিমের ফুল,ফল, বাঁকল সবকিছু ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে।
  • করলাঃ ছোটবেলা থেকেই শুনে আসছি যে করলা খেলে নাকি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ থাকে এবং এটা নাকি ডাক্তাররাও পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

আপনি যদি উপরে বর্ণিত উপাদান গুলো নিয়মিত খেলে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে। শুধু যে খাবার খেলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ থাকবে এমন নয় খাবার খাওয়ার সাথে সাথে হাঁটাচলা ব্যায়াম ও করতে হবে তবে আপনার ডায়াবেটিস দ্রুত কমে আসবে।

কোন ফল খেলে ডায়াবেটিস কমে ?

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে খাওয়ার তালিকা তো রেস্ট্রিক্টেড থাকায় লাগবে সাথে সাথে আমরা যে সকল ফলমূল খেয়ে থাকে সে ক্ষেত্রেও সতর্ক থাকতে হবে। অনেক ফল রয়েছে যেগুলো খাওয়ার কারণে আপনার ডায়াবেটিসের পয়েন্ট দ্রুত বাড়তে পারে। তাই আপনাকে জানতে হবে যে কোন ফল খেলে ডায়াবেটিস কমে।

আপনি যদি প্রতিদিন সকালে অথবা রাতে পেয়ারা,আপেল,কামরাঙ্গা,আমলকি,আমড়া, কমলালেবু, ড্রাগন, জাম, সফেদা, আতা,বেদেনাএ সকল ফল খান তাহলে আপনার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এই ফলগুলো খাওয়ার কারণে আপনার পাকস্থলীতে হজম শক্তি বৃদ্ধি পাবে কারণ উপরে বর্ণিত ফল গুলোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফাইবার।

কিন্তু আপনি যদি প্রতিদিন কলা, আম, কাঁঠাল, আঙ্গুর খেতে থাকেন তাহলে কিন্তু আপনার ডায়াবেটিস কমবে না বরং বেড়ে যাবে। কারণ আম, কাঁঠাল, কলাতে রয়েছে অধিক পরিমাণ গ্লুকোজ এবং ফ্রূকটোজ যেগুলো পাকস্থলীতে ভেঙ্গে সরল সরকরায় রূপান্তরিত হয়। আর রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে  গেলে আপনার ডায়াবেটিস ও বাড়তে থাকবে।

তাই আপনি যদি ফলমূল খাওয়ার মাধ্যমে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান তাহলে অবশ্যই আপেল, কমলা,আমড়া, কামরাঙ্গা, বড়ই, গাজর, পেয়ারা,আখ খাওয়ার অভ্যেস তৈরি করবেন।

ভাত বেশি খেলে কি ডায়াবেটিস হয় ?

বাঙালি মানে মাছ ভাত। কিন্তু হঠাৎ যদি ডায়াবেটিস দেখা দেয় তাহলে কি করবেন? চিন্তার বিষয় না হ্যাঁ এটা চিন্তার বিষয় এবং অনেকেই জানেন না যে ভাত বেশি খেলে কি ডায়াবেটিস হয়? হ্যাঁ আজকে আমরা আলোচনা করব ডায়াবেটিসের সাথে ভাত খাওয়ার কি সম্পর্ক।

ডায়াবেটিস হলো এমন একটি রোগ যেখানে রক্তে গ্লুকোজ এবং কার্বোহাইড্রেট এর পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। এখন ভাত হলো শর্করা জাতীয় খাবার। ভাতে রয়েছে অধিক পরিমাণ শর্করা, স্টার্চ। গ্লুটেনেন, ক্যালরি যেগুলো ডায়াবেটিস বৃদ্ধি করে। তাই যে সকল ব্যক্তির ডায়াবেটিস রয়েছে তারা একটু কম ভাত খাওয়ার চেষ্টা করবেন কারণ ভাত বেশি খেলে ডায়াবেটিস বাড়তে থাকবে।

 কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না

আমার প্রিয় পাঠক বন্ধু আপনি কি জানেন যে এমন কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো খেলে আপনার জীবনে কখনো ডায়াবেটিস হবে না? নিশ্চয়ই জানেন না জানলে তো আর খুঁজতে আসতেন না। তাহলে চলুন জেনে নিই যে কি কি খাবার আছে যেগুলো খেলে কখনো ডায়াবেটিস হবে না,

  • মিষ্টান্ন বর্জনঃ আপনার খাদ্য তালিকা থেকে মিষ্টি জাতীয় খাবার পরিহার করতে হবে তাহলে কখনো আপনার ডায়াবেটিস হবে না।
  •  অর্জুন গাছঃ অর্জুন গাছের ছাল যদি আপনি প্রতিদিন পানিতে ভিজিয়ে রেখে খান তাহলে আপনার ডায়াবেটিস হবে না।
  • হাতিশুর গাছঃ হাতিশুর গাছের পাতা বেটে রস করে খেলে ইনশাআল্লাহ ডায়াবেটিস নামক রোগ থেকে আপনি সুরক্ষিত থাকবেন।
  •   উলট কোমরঃ গ্রামগঞ্জে উলট কোমর নামের গাছ হয়ে রয়েছে সে গাছগুলো ভালোভাবে ধুয়ে পরিষ্কার করে পানিতে ভিজিয়ে খেলে রক্তে চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
  •  ছোট মাছঃ এছাড়াও শরীরে প্রোটিনের অভাবেও কিন্তু ডায়াবেটিস হয় তাই ছোট মাছ খাওয়ার অভ্যাস রাখতে হবে।
  •  দানা জাতীয় খাবারঃ খাবার তালিকায় বিভিন্ন রকমের শস্য দানা যেমন কাজু বাদাম চিনা বাদাম মটরশুঁটি ছোলা কাঁচা ছোলা এর এই সকল খাবার খেলে রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে থাকে যার ফলে ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম থাকে।

উপরে বর্ণিত উপাদান গুলো যদি আপনি প্রতিদিন খেতে থাকেন তাহলে আপনার ডায়াবেটিস হবে না এবং রক্তে পরিষ্কার থাকবে।

ব্লাড সুগার কি কি খাওয়া যাবে না?

ব্লাড সুগার হলে কিছু কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো একেবারেই খাওয়া যাবে না। কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে এবং ব্লাড সুগার কমানোর জন্য কি কি খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে চলুন সেগুলো জেনে নিই।

কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে - কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না

ব্লাড সুগার বলতে বোঝায় রক্তের সুগারের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়া। রক্তে এই সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য সরাসরি চিনি খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। খেজুরের গুড় অথবা খেজুরের রস খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে, এছাড়াও মিষ্টি জাতীয় দ্রব্যাদি দই, সন্দেশ, সেমাই, চকলেট এগুলো খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য আরেকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে যে ক্যাফেইন জাতীয় খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকা। এখন ক্যাফেইন জাতীয় খাবারের মধ্যে পড়ে কফি চা রং চা চকলেট বিভিন্ন ডার্ক সস ইত্যাদি এই সকল খাবারে সুগারের পরিমাণ বেশি থাকে এর জন্য এই সকল খাবার থেকে বিরত থাকতে হবে।

আপনি যদি আপনার ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার খাদ্য তালিকা থেকে মিষ্টি জাতীয় খাবার বর্জন করবেন এবং শাকসবজি, প্রোটিন জাতীয় খাবার খাবেন। খাদ্য তালিকায় অধিক পরিমাণ ফাইবারে জাতীয় খাবার যুক্ত করবেন এবং পানি বেশি করে খাবেন।

কি কি খাবার খেলে ডায়াবেটিস বাড়ে ?

আমাদের প্রতিদিনের খাবার তালিকায় এমন এমন খাবার রয়েছে যেগুলো খেলে যেমন আমাদের ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে ঠিক তেমনি এমন অনেক খাবার রয়েছে যেগুলো খেলে দ্রুত ডায়াবেটিস বেড়ে যায়। তাহলে অবশ্যই জানতে হবে যে আমরা না জেনে কোন কোন খাবার খেয়ে থাকি যেগুলোর কারণে আমাদের ডায়াবেটিস বেড়ে যায়।

যে সকল খাবার খেলে দ্রুত ডায়াবেটিস বাড়েঃ আলু, মিষ্টি আলু, মিষ্টি কুমড়া, কাঁচা কলা, পাকা কলা, আঙুর, খেজুরের গুড়, মিষ্টি, দই, সন্দেশ, মিছরি, আম, কাঁঠাল, গরুর মাংস ইত্যাদি এই সকল খাবারগুলোতে অধিক পরিমাণ ক্যালরি এবং সুগার এর পরিমাণ বেশি যার কারণে এই খাবারগুলো খাওয়ার কারণে ডায়াবেটিস বেড়ে যায়।

দ্রুত ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করার উপায়-ডায়াবেটিস কমানোর প্রাকৃতিক উপায়

ডায়াবেটিস হলে ওষুধ খেয়ে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে অথবা ইনসুলিন নেয়ার মাধ্যমে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে তার কোন ধরা বাধা নিয়ম নেই। আপনি চাইলে ঘরোয়া উপায়ে প্রাকৃতিক উপাদান দেওয়া আপনার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন। ডাক্তার বলেন যে যত কম ওষুধ খেয়ে শরীর সুস্থ রাখা যায় ততটাই ভালো। তাহলে অবশ্যই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করার উপায় গুলো আমাদের জানা উচিত।

  • সজনে পাতাঃ প্রাকৃতিক উপায়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য একটি ওষুধে গুণসম্পন্ন পাতা হল সজনে পাতা। সজনে পাতার রস, সজনে পাতার সুপ, সজনে পাতগুড়ো করে অথবা শাক হিসেব খেতে পারেন।
  • নিম পাতাঃ নিম পাতার রস, নিমপাতা বাটা খেলে রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে।
  • নিমের ছালঃ নিমের ছাল ছাড়িয়ে পাটাতে বেটে খেলে এটি ইনসুলিন বৃদ্ধি করে এবং ইনসুলিন এর ঘাটতি দূর করে।
  • নিমের ফুলঃ ডায়াবেটিস আক্রান্ত ব্যক্তির ওজন যেহেতু বৃদ্ধি পেয়ে যায় তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য নিমের ফুল মধু দিয়ে এবং কালোজিরা দিয়ে খেলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
  • চিরতার রসঃ ডায়াবেটিস এর পয়েন্ট নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য চিরতার রস খাওয়া খুব উপকার কারণ চিরতার রস এ উপস্থিত এন্টি অক্সিডেন্ট রক্তকে পরিষ্কার রাখে কার্বোহাইড্রেট নিয়ন্ত্রণে রাখে।
  • মধুঃ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য মধু খুব উপকারী। তবে অনেকে মনে করেন যে মধু খেলে ডায়াবেটিস বাড়ে কারণ মধুর স্বাদ মিষ্টি। আপনি যদি আসল খাঁটি মধু খান তাহলে আপনার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
  • মাটির তলে গজানো সবজি ত্যাগঃ মাটির নিচে গজানো সবজি যেমন আলু মিষ্টি আলু বাদাম ইত্যাদি খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে তাহলে ডাইবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
  • আখঃ উচ্চ ডায়াবেটিস দ্রুত নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য আখের গুড় খুব উপকারী। আখের গুড় খেজুরের গুড়ের বিকল্প হিসেবে খেতে পারবেন এবং এটি খেলে আপনার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
  • ব্যায়ামঃ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য প্রতিদিন সকালবেলা এক ঘন্টা হাটা অথবা দৌড়ঝাপ করা।
  • মসলা জাতীয় খাবার ত্যাগঃ অতিরিক্ত মসলা এবং তেল চর্বিযুক্ত খাবার পরিহার করার মাধ্যমে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ থাকে।

শেষ কথা। কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে - কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না

আজকের আর্টিকেলটিতে আমি কি খেলে ডায়াবেটিস দ্রুত কমে এবং কি খেলে ডায়াবেটিস হবে না পাশাপাশি প্রাকৃতিক ভাবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা উপায় গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আশা করছি আজকের আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা উপকৃত হবেন। আর্টিকেলটি আপনার পরিচিত বন্ধু-বান্ধবদের সাথে শেয়ার করে দিবেন ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

স্বাগতম বিডিরনীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url