১৫ টি কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায়

মাথার পেছনে ব্যথা হলে করণীয়কোমরের ব্যথায় দেশের অর্ধেক মানুষ কাবু। আপনিও কি কোমরের ব্যথায় ছটফট করছেন তাহলে আপনার অবশ্যই কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় গুলো জেনে থাকা প্রয়োজন। আপনি যদি কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় গুলো না জেনে থাকেন তাহলে পুরো আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন কারণ আজকের আলোচনার মূল বিষয় হলো কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায়।

১৫ টি কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায়

কোমর ব্যাথা সারানোর ঘরোয়া উপায় এবং কোমরের ব্যথা হলে কি কি খাবার খাওয়া উচিত, কোন কোন খাবার এড়িয়ে চলা উচিত ইত্যাদি বিষয়ে জানতে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

পোস্ট সুচিপত্রঃ 

ভুমিকা - ১৫ টি কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় 

প্রতিটি দেশের শতকরা ৯০ ভাগ মানুষ কোমর ব্যথায় অথবা শরীরে যে কোন ব্যথায় আক্রান্ত। ব্যথা দুরকমের হয় একিউট ব্যথা এবং ক্রনিক ব্যথা। একিউট অথবা স্বল্প মেয়াদিব্যথা এবং ক্রনিক ব্যথা অথবা দীর্ঘমেয়াদী ব্যথা সারানোর জন্য কিছুটা সহজ উপায় রয়েছে।

একিউট বা স্বল্পমেয়াদি ব্যথা একটু সতর্কতা অবলম্বন করলে এই ব্যথা থেকে দ্রুত পরিত্রাণ পাওয়া যায়। এবং ক্রনিক ব্যথা হলো ডাক্তারের পরামর্শ চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে এবং সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।একিউট এবং ক্রনিক কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় গুলো নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি বিস্তারিত আলোচনা করব।

কোমরের ব্যথা কেন হয় ?

দেশের অধিকাংশ মানুষ কোমর ব্যথায় আক্রান্ত। বার্ষিক রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গেছে যে শতকরা ৯২ ভাগ মানুষ কোমর ব্যথা নিয়ে ভোগান্তিতে রয়েছে। এই রিপোর্টে শুধু যে মধ্য বয়স্ক মানুষদের তালিকা রয়েছে তা নয় এর মধ্যে ইয়াং জেনারেশন এর যুবক যুবতী ও রয়েছে কোমর ব্যথায় আক্রান্ত।

আরও পড়ুনঃ শরীর হাত পায়ে জালাপোড়া কেন হয়?

এখন প্রশ্ন হল কোমরে ব্যথা কেন হয়? কোমরে ব্যথার অনেকগুলো কারণ রয়েছে আজকে আমি আপনাদের সাথে কোমরের ব্যথা হওয়ার প্রধান প্রধান কারণ গুলো নিয়ে আলোচনা করব। তাহলে চলুন জেনে নিই কোমরে ব্যথা কেন হয়,

  • কোমরের উপস্থিত পাঁচটি হাড় যদি কোন কারণে ক্ষয় হয়ে যায় তাহলে কোমরে ব্যথা হয়।
  • দীর্ঘক্ষণ চেয়ার টেবিলে বসে কাজ করা অথবা পড়াশোনা করার কারণে কোমরে একিউট ব্যথা হয়।
  • মানুষের কোমরের হাড়ের মধ্যে ২ ইঞ্চির ফাঁকা জায়গা থাকে। বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে যখন কোমরের ফাঁকা জায়গা বেরিয়ে আসে বা পূরণ হয়ে যায় তখন নার্ভের উপর চাপ পড়ে যার ফলে কোমরে ব্যথা অনুভূত হয়।
  • কোমরে ব্যথা হওয়ার আরেকটি কারণ হলো দীর্ঘদিন যাবত স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ সেবন।
  • কোমরে ব্যথার আরেকটি কারণ হলো বংশগত রোগ বা জেনেটিক ধারাবাহিকতা।
  • শরীরে ক্যালসিয়াম, আয়রন, পটাশিয়ামের অভাবেও কোমরে ব্যথা হয়।
  • দীর্ঘদিন যাবত স্যাঁত সাথে পূর্ণ পরিবেশে বসবাস করলে শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণ আলো-বাতাস না পাওয়ার কারণে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে বিশেষ করে কোমরে ব্যথা শুরু হয়।
  • কখনো আপনার যক্ষা রোগ হয়ে থাকে তাহলে কোমরে ব্যথা বেড়ে যাওয়ার প্রবণতা বেশি থাকবে।
  • কোমরে ব্যথা হওয়ার আরেকটি কারণ হলো বড় কোন আঘাত যেমন আপনি যদি উঁচু কোন স্থান থেকে পড়ে যান তাহলে কোমরে ব্যথা শুরু হবে।
  • কোমরে ব্যথা হওয়ার আরো কারণ এর মধ্যে রয়েছে কোষ্ঠকাঠিন্য, মলদ্বারে প্রদাহ, পাইলস, ডায়রিয়া ইত্যাদি রোগের কারণেও কোমরে ব্যথা হয়।
  • বাতজ্বর, বাতের ব্যথা, আর্থাইটিস এর কারণেও কোমরে ব্যথা হয়।
  • অস্টিওপরেসিস রোগের কারণেও কোমরে ব্যথা হয়।
  • পিরিওড, গর্ভাবস্থা ইত্যাদি কারণেও মহিলাদের কোমরে ব্যথা হয়।
  • বাচ্চা প্রসবকালীন সময়ে সিজার করলে কোমরে ব্যথার প্রবণতা আরো বৃদ্ধি পায় মহিলাদের।
  • কিডনি, লিভার, ইউরিন ইত্যাদি সংক্রান্ত রোগে কোমরে ব্যথার প্রবণতা বৃদ্ধি পায়।
  • পেশিতে টান পড়লে কোমরে ব্যথা হয়।
  • দীর্ঘক্ষণ ব্যায়াম করলে, ভারী কোন জিনিস ওঠালে, দীর্ঘক্ষণ বিছানায় শুয়ে থাকলে, অধিক সময় ধরে দাঁড়িয়ে থাকলেও কোমরে ব্যথা হয়।
  • রাতে ভালো ঘুম না হওয়ার কারণে এবং মানসিকভাবে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকার কারণে কোমরে ব্যথা হয়।
  • এছাড়াও কোমর ব্যথা হওয়ার কারণ এর মধ্যে রয়েছে দূর্বলতা, অলসতা, শরীরে অতিরিক্ত ওজন ইত্যাদি কারণেও কোমরে ব্যথা হয়ে থাকে।

কোমর ব্যথা হলে কি খেতে হয়?

কোমরের ব্যথা থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে আমাদেরকে খাদ্য অভ্যাস পরিবর্তন করতে হবে। কোমরে ব্যথা সারানোর প্রধান এবং একমাত্র হাতিয়ার হল খাওয়ার তালিকা। আমাদের খাদ্য তালিকায় সে সকল খাবার রাখতে হবে যেগুলো মেরুদন্ডের হার অথবা শরীরের বিভিন্ন বোনকে শক্ত এবং পুষ্টিকর করে তুলবে।

অনেকেই প্রশ্ন করেন যে কি খাবার খেলে কোমরের ব্যথা থেকে পরিত্রান পাওয়া যায়। আজকে আমরা জানব যে কোমরের ব্যথা সারানোর সহজ উপায় গুলোর মধ্যে খাবার তালিকায় কি কি খাবার রাখলে আমরা কোমরের ব্যথা থেকে উপশম পাব।

শাকসবজিঃ কোমরে ব্যথা হওয়ার কারণ গুলোর মধ্যে একটি হলো পর্যাপ্ত পরিমাণ শাকসবজি না খাওয়া। তাই খাদ্য তালিকায় প্রতিদিন শাক সবজি রাখতে হবে। শাকসবজি খেলে শরীর কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্ত থাকে এবং আঁশযুক্ত খাবার খাওয়ার কারণে পাকস্থলী এবং শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ সুস্থ থাকে। তাই কোমর ব্যথা থেকে উপশম পেতে শাকসবজি খাওয়ার অভ্যেস গড়ে তুলতে হবে।

টাটকা ফলঃ শরীর মানব শরীরের হাড়কে পুষ্টি ক্যালসিয়াম ম্যাগনেসিয়াম এর সরবরাহের জন্য ফল একটি ভালো উৎস। খাদ্য তালিকায় সেই সকল ফল যুক্ত করুন যে সকল ফলে রয়েছে অধিক পরিমাণ ক্যালসিয়াম ফাইবার পটাশিয়াম। এছাড়াও যে সকল ফলে ভিটামিন সি এন্ড টি অক্সিডেন্ট রয়েছে সেই সকল খাবার খাওয়ার কারণে হাড় সুস্থ থাকে।

মানব শরীরের হাড়কে সুস্থ রাখার জন্য আপেল, কমলা , পেয়ারা, কলা, আনারস, আমলকি, ড্রাগন ডাবের পানি, শসা ,বেদেনা,আঙ্গুর ফল, মালটা এগুলো খেতে পারেন কারণ এই ফলগুলোতে রয়েছে ভিটামিন সি এন্ড টি অক্সিডেন্ট ক্যালসিয়াম পটাশিয়াম যেগুলো আপনার হারকে সুস্থ এবং মজবুত রাখে।

ছোট মাছঃ মানব শরীরের হাড়কে সুস্থ মজবুত এবং পুষ্টিকর রাখার জন্য প্রয়োজন পর্যাপ্ত পরিমাণ প্রোটিন। কোমরের ব্যথা থেকে দ্রুত উপশম পেতে খাদ্য তালিকায় ছোট মাছ যুক্ত করুন।

এছাড়াও কোমর ব্যাথা সারানোর জন্য দুধ, ডিম,হরলিক্স, প্রোটিন শেখ খেতে পারেন। কোমর ব্যাথা সারানোর সারানোর জন্য যদি আপনি আপনার খাদ্য তালিকায় পর্যাপ্ত পরিমাণ সুষম এবং পুষ্টিকর খাবার যুক্ত করেন তাহলে আপনি দ্রুত কোমর ব্যথা থেকে রক্ষা পাবেন।

১৫ টি কোমর ব্যাথা সারানোর সহজ উপায়

শিরোনাম দেখে আপনারাই বুঝতেই পেরেছেন যে আজকের আর্টিকেলটির মূল আলোচ্য বিষয় হলো কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় যেগুলো আপনি বাড়িতে অবলম্বন করেই কোমর ব্যথা থেকে দ্রুত আরাম পাবেন। তাহলে চলুন এখন জেনে নিন কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় গুলো,

১৫ টি কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায়

  • কোমর ব্যথা সারানোর জন্য আপনি প্রতিদিন সকালে ১ ঘন্টা হাটাহাটি করবেন তাহলে কোমর ব্যথা থেকে আরাম পাবেন।
  • উচু স্থানে বসে থেকে কখনো নিচু হয়ে কাজ করবেন না তাহলে নার্ভের উপর চাপ পড়বে।
  • কোমর ব্যথা সারানোর জন্য প্রতিদিন অন্তত আট থেকে দশ গ্লাস পানি পান করতে হবে।
  • খাবার তালিকায় অধিক পরিমাণ ক্যালসিয়াম প্রোটিন আয়রন সমৃদ্ধ খাবার রাখতে হবে।
  • খাদ্য তালিকায় শাকসবজি যুক্ত করতে হবে যেন শরীর কোষ্ঠকাঠিন্য মুক্ত থাকে।
  • শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে অতিরিক্ত ওজন কোমর ব্যথার প্রধান কারণ।
  • ধূমপান অ্যালকোহল নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য সেবন থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে।
  • কোমর ব্যথা হলে সেখানে গরম পানির শেক দিতে হবে।
  • দীর্ঘক্ষণ এক জায়গায় বসে থেকে কাজ করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • ভারি কোন জিনিস ছাড়া যাবে না অর্থাৎ রগে যেন ভাজ না পরে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
  • বিছানায় অধিক সময় এক কাথ হয়ে শুয়ে থাকা থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • অধিক তেল মসলা চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • কোমরে ব্যথা হলেই চট করে ব্যথার ওষুধ খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে কারণ ব্যথা নাশক ঔষধ খাওয়ার কারণে আপনার কিডনি ড্যামেজ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করে ক্যালসিয়াম ভিটামিন এর ঔষধ খেতে হবে।
  • খাদ্য তালিকায় ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ফলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ খাবার খাদ্য তালিকায় যুক্ত করতে হবে।
  • কোমর ব্যথা সারানোর জন্য অধিক পরিমাণ কায়িক পরিশ্রম করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • মা বোনেরা রান্না করার সময় উঁচু জায়গায় বসে রান্না করবেন অথবা সমতল জায়গায় বসে রান্না করবেন।
  • প্রতিদিন এক গ্লাস দুধ এবং একটি ডিম খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলবেন যেন শরীরে পুষ্টির অভাব না হয়।
  • মেরুদন্ডের হাড় ক্ষয় হয়ে গেলে হরলিক্স খেতে হবে।

আপনার যদি মাজায় কোমরে কোথাও ব্যথা হয় তাহলে আপনি উপরে বর্ণিত উপায় গুলো অবলম্বন করবেন আশা করছি আপনি উপশম পাবেন। এখানে একটি কথা বলবো যে আমি আপনাদেরকে শুধু জানানোর জন্য এবং সতর্ক করার জন্য আর্টিকেলটি লিখেছি কোন ওষুধ সেবনের পূর্বে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করবেন।

কোমরে ব্যথা হলে কি করা উচিত?

হঠাৎ যখন কোমরে ব্যথা হয় তখন অনেকেই বুঝতে পারেন না যে কি করলে আপনি তাৎক্ষণিক কোমর ব্যথা থেকে আরাম পাবেন। তাই আজকে আমি আপনাদেরকে সেই সকল ট্রিটস জানিয়ে দেবো যে কোমর ব্যথা থেকে তাৎক্ষণিক আরাম কিভাবে পাবেন।

যখন আপনার কোমরে ব্যথা হবে তখন আপনি গরম পানির শেক দিতে পারেন তাহলে আপনি আরাম পাবেন। এছাড়াও কোমরে ব্যথা শুরু হলে বিছানায় এসে শার্ট হয়ে সোজা হয়ে শুয়ে পড়বেন। চেষ্টা করবেন এই সময়ে অধিক পরিমাণ পানি পান করার।

বিছানায় সোজা হয়ে শুয়ে থেকে ব্যায়াম করতে পারবেন। পা দুটো উপরে তুলে পেটের কোমরে হাত দিয়ে সোজা হয়ে শুয়ে থাকবেন। প্রতি মিনিটে ৩০ থেকে ৩৫ বার উঁচু থেকে দুই পা নিচে নামাবেন এবং উপরে উঠাবেন তাহলে কোমর ব্যথা থেকে আরাম পাওয়া যাবে।

কোমর ব্যথা হলে কখনোই আপনি উপর হয়ে শুবেন না কারণ উপর হয়ে শুয়ে থাকলে কোমর ব্যথা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

শেষ কথা - ১৫ টি কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় 

প্রিয় পাঠক বন্ধু আজকের আর্টিকেলটিতে আমি আপনাদেরকে কোমর ব্যথা সারানোর সহজ উপায় এবং কি কি খাবার খেলে আপনি কোমর ব্যথা থেকে রক্ষা পাবেন ইত্যাদি বিষয়ে জানিয়েছি। আশা করছি আমারে আর্টিকেলটি পড়ে আপনি উপকৃত হবেন। 

যদি আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করবেন যারা কোমর ব্যথা নিয়ে ভোগান্তিতে রয়েছে যেন তারাও উপকৃত হয় এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

স্বাগতম বিডিরনীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url