এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম, কাজ, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - এমিলিন কি ঘুমের ঔষধ

ল্যাক্টোজেন ২ খাওয়ার নিয়মএমিলিন কি ঘুমের ঔষধ এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম ও এমিলিন ১০ এর কাজ আপনি যদি না জেনে থাকেন তাহলে আজকের আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন কারণ আজকের আর্টিকেলের আলোচনার মূল বিষয় হলো এমিলিন ১০ ঔষধ।

এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম, কাজ, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - এমিলিন কি ঘুমের ঔষধ

আজকের আর্টিকেল দের মাধ্যমে আপনারা আরো জানতে পারবেন এমিলিন প্লাস এর কাজ কি, এমিলিন ১০ বেশি খেলে কি হয়, এমিলিন ১০ দাম কত, এমিলিন ১০ এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। আপনি যদি এমিলিন ১০ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য জানতে চান তাহলে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্য অনুরোধ রইলো।

পোস্ট সূচিপত্রঃ এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম- এমিলিন কি ঘুমের ঔষধ 

.

এমিলিন ১০ এর কাজ

আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন যারা প্রায় দিনই বিষন্নতা মাথাব্যথা হলে এমিলন ১০ খেয়ে থাকি। কিন্তু অনেকেই জানেনা এমিলিন ১০ এর কাজ কি। এটা তো ঠিক নয় তাই না যে কোন ওষুধ সেবন করবো কিন্তু সেই ওষুধের কার্যকারিতা জানবো না। আমাদেরকে কোন ওষুধ সেবন করার পূর্বে অবশ্যই সে ওষুধের কাজ জেনে নেওয়া লাগবে এবং ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী খেতে হবে। তাহলে চলুন জেনে নেই এমিলিন ১০ এর কাজ,

  • অনিদ্রা, বিষন্নতা, ডিপ্রেশন, ইনসোমিয়াতে কার্যকরী এমিলন ১০
  • যে সকল ব্যক্তির দ্রুত ঘুমের প্রয়োজন তাদের ক্ষেত্রে কার্যকরী এমিলন ১০
  • ছোট বাচ্চাদের বিছানাতে প্রস্রাব করা দূর করে মিলন ১০
  • মাইগ্রেনে আক্রান্ত ব্যক্তিদের এমিলন ১০ দ্রুত মাথার ব্যথা দূর করে
  • দীর্ঘমেয়াদি মাথাব্যথা, রোদে থাকার কারণে মাথাব্যথা দূর করে এমিলন ১০
  • রাতে তাড়াতাড়ি ঘুম আসার জন্য এমিলন ১০ খাওয়া হয়।

এমিলিন ২৫ এর কাজ কি

এমিলিন ২৫ হলো এমিট্রিপটাইলিন হাইড্রোক্লোরাইড ট্রাইগ্লিসারাইড এর একটি ওষুধ। এই ওষুধ খাওয়ার কারণে প্রস্রাবের নরঅ্যাড্রিনালিন এবং সেরাটনিন হরমোন পুনগ্রহণে বাধা প্রাপ্ত হয়। এমিলিন ২৫ এর কাজ কি চলুন জেনে নিই

  • দ্রুত মাইগ্রেনের ব্যথা থেকে উপশম ঘটায়
  • ছোট বাচ্চাদের বিছানায় মূত্র ত্যাগে সমস্যা থেকে পরিত্রাণ
  • ইনসোমিয়া, মাথাব্যথা বিষণ্ণতা দূর করে
  • দ্রুত ঘুম আসার জন্য মস্তিষ্ককে শিথিল করে
  • প্রস্রাবের নালীতে সেরাটনিন হরমোন বাধা প্রাপ্ত করে
  • হাইপারটেনশন বা অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা জনিত মাথা ব্যথা দূর করে।

এমিলিন প্লাস এর কাজ কি

এমিলিন প্লাস হলো এমিট্রিপটাইলিন হাইড্রোক্লোরাইড ক্লোরডায়াজিপোক্সাইড উপাদানের তৈরি একটি ওষুধ। এই ওষুধটি মূলত নার্ভকে শিথিল এবং শীতলতা প্রদান করে দুশ্চিন্তা মুক্ত ঘুম প্রদানের জন্য দেওয়া হয়ে থাকে। এমিলিন প্লাস খুদা মন্দা, বমি বমি ভাব এর জন্য ব্যবহার করা হয় কিন্তু এমিলিন প্লাস এর নির্দিষ্ট কিছু কাজ রয়েছে। চলুন জেনে নিই এমিলিন প্লাস এর কাজ কি কি,

আরও পড়ুনঃ  কোন ভিটামিনের অভাবে ঘুম কম হয়

  • তীব্রমাত্রার বিষন্নতা দূর করে
  • মাথাব্যথা মাথার যন্ত্রণা থেকে দ্রুত উপশম ঘটায়।
  • অত্যাধিক উত্তেজিত হওয়া থেকে রক্ষা করে।
  • নার্ভকে হাইপোলাইজেশন করে শিথিলতা এবং দুশ্চিন্তা মুক্ত রাখা।
  • নিদ্রাহীনতা অবসন্নতা শারীরিক এবং মানসিক উদ্বিগ্নতা কমায়।

এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম

শারীরিক অসুস্থতা এবং মানসিক অসুস্থতা কাটিয়ে তোলার জন্য নিয়ম মেনে ওষুধ খাওয়া প্রয়োজন। চলুন তাহলে জেনে নেই এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম,

  • প্রাপ্তবয়স্কদের যদি রাতে ঘুম না হয় তাহলে প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর পূর্বে এমিলিন ১০ একটি ট্যাবলেট খেতে হবে।
  • ছোট বাচ্চাদের বিছানায় প্রস্রাব করা দূর করতে যদি মিলন দশ খাওয়াতে চান তাহলে দিনে তিনবার এমিলন ১০ খাওয়াবেন এবং ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধের ডোজ বাড়াবেন।
  • মাইগ্রেনের সমস্যা যাদের রয়েছে তারা এমিলন ১০ দিনে তিনবার খাবেন এবং ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধের ডোজ বাড়াবেন নিজে থেকে কখনোই বেশি ওষুধ খাবেন না এটা শরীরের জন্য ক্ষতিকর।
  • নিদ্রাহীনতা, বিষণ্ণতা, ইনসোমিয়া থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য প্রতিদিন দিনে দুইবার এমিলন ১০ খাবেন।
  • ডায়াবেটিস, কিডনি ড্যামেজ, স্তন্যদানকারী মা এবং গর্ভবতী মায়ের ক্ষেত্রে এমিলিন ১০ খাওয়া বিপদজনক তাই এক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কখনোই এমিলিন ১০ খাবেন না।

এমিলিন ১০ বেশি খেলে কি হয়

সাধারণ মানুষ যেমন আমি আপনি সামান্য মাথাব্যথা ঘুম না আসলে চট করে এমিলিন ১০ ওষুধ খেয়ে ফেলি। এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম মেনে খেলে যেমন তাৎক্ষণিক মস্তিষ্কের নার্ভকে শিথিলতা প্রদান করে আরাম পাওয়া যায় এটা ঠিক কিন্তু এমিলিন ১০ বেশি খেলে এটা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। এখন অনেকেই জানে না এমিলিন ১০ বেশি খেলে কি হয়।

তাহলে চলুন এখন আমরা জেনে নিই এমএলএম ১০ বেশি খেলে কি হয়,

  • খিচুনি বা পারকিনসন রোগ হয়
  • মাথা ঘুরে, মাথার পেছনে যন্ত্রণা হয়
  • এমিলিন ১০ বেশি খেলে ঘুম থেকে জাগা না পেয়ে মৃত্যুর সম্ভাবনা থাকে
  • এমিলিন ১০ বেশি খেলে মাথার নার্ভের চাপ পড়ে এবং অক্সিটক্সিন নিউরোটক্সিন হরমোনের মিথস্ক্রিয়ার কারণে ব্রেন স্ট্রোকের সম্ভাবনা থাকে।
  • এছাড়াও এমিলিন ১০ বেশি খেলে জ্ঞান না ফেরা, অচেতন হয়ে থাকা, ভুলভাল বকা এসব সমস্যা দেখা দেয়।

এমিলিন ১০ কি ঘুমের ঔষধ - এমিলিন কি ঘুমের ঔষধ

এমিলিন ১০ ওষুধের কথা মনে আসলে একটি চিন্তা ঘুরপাক খায় যে এমিলিন ১০ কি ঘুমের ঔষধ বা এমিলিন কি ঘুমের ঔষধ? আপনিও যদি জানতে চান যে এমিলন ১০ কি ঘুমের ঔষধ তাহলে আজকের আর্টিকেলটির মাধ্যমে আপনি একটি স্পষ্ট জ্ঞানলাভ করবেন যে এমিলিন কি ঘুমের ঔষধ নাকি না।

এমিলিন ১০ হলো এমিট্রিপটাইলিন হাইড্রোক্লোরাইড ট্রাইগ্লিসারাইড গ্রুপের ওষুধ। এই ওষুধের ডাক্তাররা তখনই রয়েছে খেতে দেন যখন তাদের ইনসমিয়া রাত জাগা নিদ্রাহীনতার ডিপ্রেশন হাইপ্রোটেনশন জনিত সমস্যা থাকে। যে সকল ব্যক্তির উপরোক্ত সমস্যা রয়েছে তাদের মস্তিষ্ক থেকে অধিক পরিমাণ নিউরোটক্সিন ক্ষরণ হয় যার কারণে তাদের ঘুমে ব্যাঘাত ঘটে।

মস্তিষ্ক থেকে অধিক পরিমাণ নিউরোটক্সিন ক্ষরণ হলে সেই ঘাটতে দূর করার জন্য অধিক পরিমাণনিউরোটক্সিন উৎপন্ন হওয়া প্রয়োজন এজন্য প্রয়োজন নার্ভকে শীতল করা এবং গভীর ঘুম। আপনি জেনে অবাক হবেন যে গভীর ঘুমের সময় একমাত্র মস্তিষ্কের নিউরোটক্সিন সংগ্রহ হয়। তাই যে সকল ব্যক্তির রাতে ঘুম হয় না রাত জেগে থাকে ডাক্তাররা তাদেরকে এমিলিন ১০ খাবার পরামর্শ দিয়ে থাকে।

আপনাদের যে সকল ব্যক্তির মনে মনে প্রশ্ন রয়েছে যে এমিলিন ১০ কি ঘুমের ঔষধ? তাদের জন্য বলব এমিলিন ১০ একটি ভালো মানের ঘুমের ওষুধ এবং এই ওষুধ খেলে আপনি প্রায় আট থেকে দশ ঘণ্টা গভীর ঘুমে ঘুমাবেন। এমিলিন ১০ খেয়ে আট ঘন্টা ঘুমালে আপনার মস্তিষ্কে অধিক পরিমাণ নিউরোটক্সিন সংরক্ষণ হবে।

এমিলিন ১০ দাম কত

আমরা অনেকেই জানিনা এমিলিন ১০ দাম কত। এমিলিন ১০ এর দাম জানার জন্য আমরা প্রায় সময়ই গুগল এ সার্চ করে থাকি কিন্তু এমিলিন ১০এর সঠিক দাম জানতে পারিনা। আজকে আমি আপনাদেরকে জানাবো এমিলিন ১০ দাম কত।

এমিলিন ১০ অপসনিন ফারমাছিউটিক্যালস এর এমিট্রিপটাইলিন হাইড্রোক্লোরাইড ট্রাইগ্লিসারাইড গ্রুপের একটিওষুধ এ ওষুধটি মস্তিষ্কের নার্ভ কে শিথিলতা প্রদান করে। এমিলিন ১০ প্রতিটি ওষুধের দাম .৮৫টাকা।

এমিলিন ১০ এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে আমরা যে সকল ওষুধ খাই সে সকল ওষুধ আমাদের শরীরে গিয়ে দ্রুত ক্ষতিকর জীবাণু ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করে। ওষুধ খাওয়ার যেমন উপকার করেছে ঠিক তেমনি যে কোন ওষুধ খাওয়ার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে। এমিলিন ১০ খেলে যেমন বিষন্নতা, নিদ্রাহীনতা, ডিপ্রেশন থেকে উপশম পাওয়া যায় ঠিক তেমনি এমিলিন ১০ এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ সাপোজিটরি ব্যবহারের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

 চলন জেনে নিন এমিলিন ১০ এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া গুলো কি কি,

  • গলা মুখ শুকিয়ে আসা
  • ইউরিনারে ট্র্যাকশন বা মূত্রের সমস্যা
  • অতিরিক্ত জ্বর চোখে ঝাপসা দেখা চোখে ব্যথা অনুভব করা
  • বুক ধরফর করা বুকে ব্যথা করা উচ্চ রক্তচাপ বেড়ে যাওয়া
  • ক্ষুধা মন্দা, ওজন কমে যাওয়া,বমি বমি ভাব, কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়রিয়া
  • এলার্জির জনিত সমস্যা দেখা দেওয়া, রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কমে যাওয়া।

লেখক এর শেষ কথা - এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম, এমিলিন কি ঘুমের ঔষধ

আজকের আর্টিকেলটির মাধ্যমে আমি আপনাদেরকে এমিলিন ১০ খাওয়ার নিয়ম, এমিলিন ১০ কি ঘুমের ঔষধ,এমিলিন ১০ এর দাম, পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানিয়েছি। আশা করছি আজকের আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা উপকৃত হবেন। আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই আপনার পরিচিত বন্ধু বান্ধব দের সাথে শেয়ার করে দিবেন। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য জানতে নিয়মিত আমার স্বাগতম বিডি ওয়েবসাইটে ভিজিট করবেন ধন্যবাদ।


এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

স্বাগতম বিডিরনীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url